, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪ , ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ


চাকরি না পেয়ে সব সার্টিফিকেট পুড়িয়ে ফেললেন ইডেন কলেজের মুক্তা

  • আপলোড সময় : ২৫-০৫-২০২৩ ০৩:৫৬:১৮ অপরাহ্ন
  • আপডেট সময় : ২৫-০৫-২০২৩ ০৩:৫৬:১৮ অপরাহ্ন
চাকরি না পেয়ে সব সার্টিফিকেট পুড়িয়ে ফেললেন ইডেন কলেজের মুক্তা
সম্প্রতি সরকারি চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা শেষ হয়েছে ইডেন কলেজের শিক্ষার্থী মুক্তা সুলতানার। এর মধ্যে তিনি বেসরকারি কোনো চাকরিতেও নিজেকে যুক্ত করতে পারেননি। সেই রাগে ফেসবুক লাইভে এসে নিজের সব একাডেমিক সার্টিফিকেট পুড়িয়ে ফেলছেন তিন। গত মঙ্গলবার ইডেন কলেজের সামনে মুক্তা তার নিজের ফেসবুক লাইভে থেকে আগুন ধরিয়ে দেন সার্টিফিকেটে।

জানা যায়, সেশনজট ও করোনার কারণে চাকরির আবেদনের সময় শেষ হয়েছে। এ কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করে সার্টিফিকেট পুড়িয়ে দেন মুক্তা। তার দাবি অনুযায়ী, বর্তমানে এ শিক্ষার্থীর সার্টিফিকেট সরকারি-বেসরকারি কোনো চাকরিতে কাজে লাগছে না। ফলে তিনি এসব পুড়িয়ে দেন তিনি।

লাইভে দেখা যায়, তিনি তার মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের সার্টিফিকেট পোড়াচ্ছেন। এর আগে তিনি দেখান, তার স্নাতক পরীক্ষা ২০১৩ সালে এবং স্নাতকোত্তর পরীক্ষা ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০১৫ সালে তার পরীক্ষা হলেও ২০১৯ সালে তার সার্টিফিকেট ইস্যু হয়। ২০১৫ সালে পরীক্ষা দিয়েও তিনি ২০১৯ সাল পর্যন্ত ৪ বছর কোথাও আবেদন করতে পারেননি। চাকরির বয়সসীমা অনুযায়ী তার আবেদনের সময়ের চার বছর কাজে লাগাতে পারেননি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে মুক্তা বলেন, যে সার্টিফিকেট দিয়ে সরকারি চাকরিতে আবেদন করা যায় না, বেসরকারি চাকরিতেও আবেদন করা যায় না, সে সার্টিফিকেট রেখে লাভ কি? পোকামাকড়ে খাওয়ার চেয়ে ছাই বানানো অনেক ভালো।

তিনি আরো বলেন, দক্ষিণ এশিয়াসহ পৃথিবীর কোথাও এই বয়স সীমা নেই। শুধু বাংলাদেশ আর পাকিস্তানে এ অবস্থা। ২৭ বছর পড়াশোনা করে যদি আবেদনই না করতে পারি, তা হলে পড়াশোনা করে লাভ কী?
কোটা নিয়ে আপিল বিভাগের শুনানি রবিবার, বিশেষ চেম্বার আদালতের আদেশ

কোটা নিয়ে আপিল বিভাগের শুনানি রবিবার, বিশেষ চেম্বার আদালতের আদেশ